দেশে ফিরে অভ্যর্থনা পেলেন সু চি

0
243

নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা গণহত্যার শুনানি শেষ হয়েছে। গত মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া তিন দিনব্যাপী এ শুনানি শেষ হয় বৃহস্পতিবার।

ওই শুনানিতে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর পক্ষে সাফাই গেয়েছেন দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি। এরপর গত শনিবার দেশে ফেরার পর রাজসিক অভ্যর্থনা পেলেন সু চি। তাকে অভ্যর্থনা জানাতে নেপিদোর রাস্তার পাশে জড়ো হয় হাজার হাজার মানুষ। পতাকা হাতে এসব সমর্থকদের প্রতি হাত নেড়ে সাড়া দেন সু চিও।
স্থানীয় এক কৃষক খিন মং সোয়ে রয়টার্সকে বলেন, দেশের পক্ষে লড়তে আদালতে গিয়েছিলেন ‘মাদার সু চি’। এই অভিযোগ সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে। কিন্তু দেশের নেতা হিসেবে দায়-দায়িত্বের প্রথম পদক্ষেপ তিনি নিজেই নিয়েছেন। আদালতে সু চি রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা চালানোর অভিযোগ অস্বীকার করেন। মিয়ানমার এই মামলাটি খারিজ করতে আদালতকে অনুরোধ জানায়।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইনের কয়েকটি তল্লাশি চৌকিতে বিদ্রোহীদের হামলার পর রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত অভিযান চালায় মিয়ানমার সেনাবাহিনী। হত্যাযজ্ঞ, ধর্ষণ, নির্যাতনের মুখে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। এ ঘটনার দুই বছরের বেশি সময় পর গত ১১ নভেম্বর অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশনের (ওআইসি) সমর্থনে আইসিজেতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা গণহত্যার অভিযোগ আনে পশ্চিম আফ্রিকার ছোটো দেশ গাম্বিয়া। গত ১০ থেকে ১২ ডিসেম্বর আইসিজেতে এই মামলার শুনানি হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here