বরগুনার মোহনা পর্যটন কেন্দ্রের সৌন্দর্যে মুগ্ধ তারা

0
1152

নিজস্ব প্রতিবেদক

কিছুদিন আগেও অন্য নদীর তীরের মতোই ছিলো বরগুনার বালিয়াতলী এলাকার বিষখালী ও পায়রা নদীর নদীর মোহনা। কিন্তু কিছু উদ্যোমী তরুণ এবং জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় সেই জায়গাটি এখন সেজেছে অপরূপ সাজে। ইতিমধ্যে তকমা পেয়েছে ‘মোহনা পর্যটন কেন্দ্র” নামে। পর্যটকদের সুবিধার্থে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নানা উন্নয়নও হয়েছে এরইমধ্যে।


নতুন এই পর্যটন স্পটটির কথা গণমাধ্যমের পাশাপাশি ভার্চুয়াল জগতে ছড়িয়ে পড়েছে। তাই প্রতিনিয়ত সেখানে ঘুরতে যাচ্ছেন বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ। এতদিন বরগুনার প্রকৃতিপ্রেমীদের পদচারণায় মুখর হলেও, প্রথমবারের মতো একটি পর্যটক টিম ঘুরে গেলেন মোহনা পর্যটন স্পট সহ সদর উপজেলার আরো কিছু অপরুপ জায়গা ।

 

শুক্রবার বরিশাল জিলা স্কুলের এসএসসি -১৯৯১ ব্যাচের প্রায় অর্ধশতাধিক সদস্য ছাড়াও, এই পর্যটকদের দলে ছিলেন একজন জার্মান পর্যটক। থমাস হফার নামের এই বিদেশি পর্যটক মোহনা পর্যটন কেন্দ্র,শুভ সন্ধা সমুদ্র সৈকত, ইহান পল্লী সহ বরগুনার একাধিক জায়গা ঘুরে প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, তিনি খুব কাছ থেকে বাংলাদেশের এমনপ্রাকৃতিক দৃশ্য দেখে সত্যি মুগ্ধ। তিনি সুযোগ হলে বারবার ছুটে আসবেন নয়নাভিরাম বরগুনা জেলার দৃশ্য দেখতে।

কিছু রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থায়, কষ্ট হয়েছে কিনা??এই প্রশ্নের উত্তরে টিমের অন্যতম সদস্য দিপু হাফিজুর রহমান জানিয়েছেন,বরগুনার প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মুগ্ধতায় ভ্রমন ক্লান্তি এক নিমিষেই দূর হয়ে গেছে। তিনি আরো বলেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্য অবলোকনে,যোগাযোগ ব্যবস্থা কখনোই প্রতিবন্ধকতা হতে পারে না।বিশেষ করে নতুন মোহনা পর্যটন স্পট তৈরীতে যারা নেপথ্যে কাজ করেছেন তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, বালিয়াতলীর এই স্পটটি প্রথম নজরে আনেন আরিফ খানের নেতৃত্ব গড়া সবুজ বরগুনা নামের একটি স্বেচ্ছাসবী সংগঠন। তারা নদীর মোহনায় ভাঙন রোধে রাখা ইটের ব্লক নানান রঙে রাঙিয়ে দেন। পরে নজরে আসে জেলা প্রশাসনের। তারা সেখানে টয়লেট নির্মান,রাস্তা সংস্কার সহ আরো বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম করেছেন যা বর্তমানেও চলমান রয়েছে।

বরিশাল জিলা স্কুলের সাবেক শিক্ষার্থীদের এই পর্যটকক টিমের পুরো ব্যবস্থাপনায় রয়েছে গ্রান্ড খান গেষ্ট হাউস, ইহান পল্লী এবং সবুজ বরগুনা।

মোহনা পর্যটন কেন্দ্র থেকে ট্রলার যোগে তারা শুভসন্ধ্যা সমুদ্র সৈকত ঘুরে দেখে আসেন।পরে ইহান পল্লীতে রাতে তারা ক্যাম্প ফায়ার ও বাউল গানের আসরে যোগ দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here